দেশীয় মাছ বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর আহবান

 সিটিজেন নিউজ ডেস্ক
আপডেট: ২০২০-০৭-২২ , ০৫:২৯ পিএম

দেশীয় মাছ বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর আহবান ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২০’ উদ্বোধন

সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে দেশ আজ মৎস্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে জানিয়ে বিলুপ্তির হাত থেকে দেশীয় প্রজাতির মাছ রক্ষার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, মৎস্য চাষে গতানুগতিক পদ্ধতি থেকে বেরিয়ে এসে উন্নত ও আধুনিক পদ্ধতি গ্রহণ করার মাধ্যমে দেশীয় প্রজাতির মাছকে বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।  

বুধবার (২২ জুলাই) সকালে গণভবন লেকে পোনামাছ অবমুক্ত করে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২০ উদ্বোধন করে এ আহবান জানান তিনি। বিদেশে মাছ রপ্তানী করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সরকারের লক্ষ্য বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। মৎস্য খাতের উন্নয়নে ভুমিকা রাখায় সংশ্লিষ্টদের প্রশংসা করেন তিনি। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে প্রায় পৌনে পাঁচশত প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ এবং ২৫০ প্রজাতির বেশি স্বাদুপানির মাছ রয়েছে। এছাড়াও চিংড়ি, কাঁকড়া, শামুকসহ অসংখ্য মৎস্যসম্পদের আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক বাজারে প্রচুর চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে। মৎস্য চাষে গতানুগতিক পদ্ধতি থেকে বেড়িয়ে এসে উন্নত ও আধুনিক পদ্ধতি গ্রহণ করার মাধ্যমে দেশীয় প্রজাতির মাছকে বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করতে হবে।

উল্লেখ করেন, মৎস্য ক্ষেত্রে বিনিয়োগের ফলে একদিকে যেমন নতুন নতুন কর্মক্ষেত্র সৃষ্টি হয় তেমনি সমৃদ্ধ হয় জাতীয় অর্থনীতি।

এসময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে সরকারের গৃহীত নানামূখী পদক্ষেপ ও সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অগ্রগতি সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি বলেন মৎস্য সেক্টরে গত ১১ বছরে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে বাড়তি প্রায় ৬৫ লক্ষ লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে এবং বৃদ্ধি পেয়েছে মৎস্য চাষি ও মৎস্যজীবীদের আয়। মা-ইলিশ রক্ষা ও জাটকা নিধন রোধে আমরা কার্যকর কর্মসূচি গ্রহণ করেছি; জাটকা আহরণে বিরত দরিদ্র জেলেদের খাদ্য সহায়তা দেয়া অব্যাহত রয়েছে; ফলে, ইলিশের উৎপাদন ২০০৯ এর পরিমান থেকে দ্বিগুনের বেশী বৃদ্ধি পেয়েছে।