অবশেষে জামিন পেলেন পরীমণি

 আদালত প্রতিবেদক
আপডেট: ২০২১-০৯-০১ , ০৯:১১ এএম

অবশেষে জামিন পেলেন পরীমণি ছবি: ইন্টারনেট

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণির জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার (৩১শে আগষ্ট) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন। 

এর আগে রোববার (২৯শে আগস্ট) উচ্চ আদালতের নির্দেশে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ পরীমণির জামিন শুনানির জন্য ৩১শে আগস্ট দিন ধার্য করেন।

পরীমণির আইনজীবী মজিবুর রহমান জামিনের পক্ষে আদালতে যুক্তি উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, ৩ দফায় ৭ রিমান্ডে নেয়ার পরও পরীমণির কাছ থেকে কোন তথ্য উদঘাটিত হয়নি। যে সব মাদকের কথা বলা হয়েছে সে বিষয়ে কোন প্রমাণ এখনো আসেনি। ২৬ দিন ধরে কারাগারে থাকায় পরীমণি শারীরিকভাবে খুবই অসুস্থ। রিমান্ডে থাকা অবস্থায় সে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েছে বলে জানান আইনজীবী।

গত ২৬শে আগস্ট পরীমণির জামিন শুনানি দেরির বিষয়ে জানতে রুল দেয় হাইকোর্ট। ১লা সেপ্টেম্বরের মধ্যে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। এদিকে রুলের জবাব দেয়ার আগেই পরীমণির জামিন শুনানি দুই সপ্তাহ এগিয়ে আনে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত। 

এর আগে ৪ঠা আগস্ট সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পরীমণিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

ওইদিনই রাত ৮টায় পরীমণিকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে র‌্যাব সদরদফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত ১২টা পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে র‌্যাব। পরদিন ৫ই আগস্ট বিকেল ৫টা ১২ মিনিটে পরীমণি, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের দুই সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে করে বনানী থানার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) বাদী হয়ে রাজধানীর বনানী থানায় পরীমণি ও তার সহযোগী দিপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে।

চিত্রনায়িকা পরীমণি ২০১৪ সালে সিনেমা জগতে পা রাখেন। এ পর্যন্ত ৩০টি সিনেমা ও পাঁচ-সাতটি টিভিসিতে অভিনয় করেছেন তিনি। প্রযোজক রাজ তাকে পিরোজপুর থেকে ঢাকায় সিনেমা জগতে নিয়ে আসেন।